5.8 C
Los Angeles
জানুয়ারি ২৬, ২০২১
News All Bangladesh
অপরাধ কুমিল্লা

ভয়াভহ সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েও ভুক্তভোগীর অভিযোগ নেয়নি ব্রাম্মণপাড়া থানা

স্টাফ রিপোর্টারঃ

ব্রাম্মণপাড়ার শশীদল ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডের গঙ্গানগর গ্রামের মান্নান ড্রাইভারের বাড়ীর মোঃ শরীফুল ইসলাম (২০) এর উপর একই গ্রামের তৈয়ব আলীর ছেলে আনোয়ারের নেতৃত্বে গত রবিবার  ৮ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬ টায় ১০-১৫ সন্ত্রাসী অতর্কিত হামলা চালায়।

এসময় শরীফের বাবা আবু তাহের মিয়া ও মা তার ছেলে কে বাচাতে এলে শরীফ সহ তাদের কেও বেধড়ক মারধর ও ছুরিকাঘাত করে। শরীফের মাথায় চা পাতি দিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়।

আহত অবস্থায় শরীফ  ও তার মা বাবা ব্রাম্মণপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। স্থানীয় বিভিন্ন সুত্রে জানা যায় যে সন্ত্রাসী আনোয়ার দীর্ঘদিন যাবত ইয়াবা ও মাদক ব্যবসায় সহ ভিবিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কারণে আনোয়ার সহ তার তিন ভাই, দেলোয়ার,উজ্জল, সালাউদ্দিনের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে।

কুখ্যাত মাদক কারবারী হওয়ার কারণে আনোয়ার ও তার তিন ভাই কে কিছুদিন পর পর ধাওয়া করে প্রশাসন।মাদক ব্যবসায়ী আনোয়ারের সন্দেহ তাদের মাদক ব্যবসায়ের বিরুদ্ধে প্রশাসনের কাছে তথ্য দিয়ে প্রশাসন কে সাহায্য করে, শরীফুল, এতে তাদের মাদক ব্যবসায়ের ব্যাপক ক্ষতিসাধন হয়।

এই সন্দেহেই আনোয়ার তার তিন ভাই সহ তাদের১০-১৫ জনের সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে শরীফুল ইসলাম পরিবারের উপর আতর্কিত ন্যাক্কারজনক  হামলা করে। হামলায় আহত শরীফুল ইসলামের বিবৃতি নিয়ে জানা যায়, প্রতিদিনকার মতই তার দোকানে কর্মরত অবস্থায় ছিলো। হঠাৎ সন্ত্রাসী আনোয়ার বাহীনি দোকানে ঢুকে এলোপাথারি ভাবে ছুরিকাঘাত করে, এরপর সে অজ্ঞান হয়ে যায়। অজ্ঞান হওয়ার পুর্বে সন্ত্রাসী আনোয়ারের সাথে তার তিন ভাই সহ আরো যারা ছিলো তারা হলেন একই গ্রামের, মাহিন,শাকিল,আরিফ, আওয়াল, শহীদ, শফিক, ও অহিদ সহ অন্যান্যরা। আহত অবস্থায় শরীফ কে নিয়ে তার পরিবার পরিজন ব্রাম্মনপাড়া থানায় অভিযোগ কর‍তে গেলে, সেখানকার কর্মরত পুলিশ তাদের কে চিকিৎসা নিয়ে তারপরে অভিযোগ করার কথা বলে। পরবর্তীতে চিকিৎসা নিয়ে থানায় অভিযোগ করতে গেলে সেখানকার কর্মরত ডিউটি অফিসার মতিউর জানান, এই বিষয় টি উপরের মহলে চলে গেছে, সুতরাং আমাদের কিছুই করার নেই” এমবতাবস্থায় শরীফুল ও তার পরিবার বারবার আকুতি মিনতি ও চেষ্টা করার পরেও থানায় অভিযোগ করতে পারেনি। এ মুহুর্তে শরীফুল ও তার পরিবার বি-পাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসারত ও আশ্রিত অবস্থায় আছে। সন্ত্রাসী আনোয়ার বাহীনির আক্রমণ হুমকির ভয়ে তারা বাড়িতে ফিরতে পারছেন না। এ বিষয়ে শরীফুল ইসলাম জানান,  তার জীবনের  নিরাপত্তা ও বিচার চেয়ে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন।

Related posts

কুমিল্লার চান্দিনায় নকল টেং তৈরীর কারখানার সন্ধান

Riaj uddin Rana

ভাউকসার ইউনিয়নে আওয়ামী যুবলীগের ৪৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

Riaj uddin Rana

বরুড়ায় হামলায় ঘরবাড়ি ও দোকান ভাংচুর

Riaj uddin Rana

Leave a Comment